ক্রিকেট খেলায় বাধা দিয়ে থাপ্পড় খেলেন পুলিশ

প্রকাশিতঃ মার্চ ২৬, ২০২০ আপডেটঃ ১:২৩ অপরাহ্ন

করোনার ঝুঁকি এড়াতে ২১ দিনের জন্য লকডাউন করে দেয়া হয়েছে পুরো ভারত। কিন্তু কে শোনে কার কথা? লকডাউন অমান্য করেই ক্রিকেট খেলতে নেমে পড়েন একদল। তাদের খেলতে মানা করায় উল্টো মার খেতে হলো পুলিশকে। যার মধ্যে নিজেকে আইনজীবী হিসেবে পরিচয় দেয়া এক যুবক পুলিশ সদস্যকে থাপ্পড়ও মেরেছেন।

সবাই জানে, ভারতে ক্রিকেটকে ধরা হয় স্বতন্ত্র একটি ধর্ম হিসেবে। সেই ধর্মের ঈশ্বর আর কেউ নন, সর্বকালের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান শচিন টেন্ডুলকার। তিনিও বলেছেন আপাতত এই কয়দিন ক্রিকেট খেলা থেকে বিরত থাকতে।

কিন্তু ক্রিকেট ঈশ্বরের কথাও মানেননি মধ্যপ্রদেশের দেয়াস জেলার মানুষেরা। বুধবার লকডাউন অমান্য করেই খেলতে নেমেছেন ক্রিকেট। পরে পুলিশ তাদের বাঁধা দিলে ইট নিক্ষেপ করে অন্তত ৪ পুলিশকে আহত করেছেন সেসব আইন অমান্যকারী মানুষ।

বুধবার বিকেলের দিকে লকডাউন অমান্য করার তথ্য পেয়ে দেয়াসের একতা নগর কলোনীর উজ্জাইন রোড এরিয়াতে হানা দেয় পুলিশের একটি দল। সেখানে গিয়ে তারা দেখতে পায় খোলা জায়গায় ক্রিকেট খেলছে কয়েকজন যুবক।

ফলে স্বাভাবিকভাবেই তাদের ক্রিকেট খেলতে বাঁধা দেন পুলিশ সদস্যরা। কিন্তু খেলা বন্ধ করার বদলে পুলিশদের গালিগালাজ করার পাশাপাশি ইট নিক্ষেপ করতে থাকে যুবকরা।

এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে পুলিশ পরিদর্শক যোগেন্দ্র সিং সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘আমরা জানতে পারলাম আমাদের একটি বাহিনী আক্রমণের শিকার হয়েছে। তৎক্ষণাৎ আরও সদস্য নিয়ে সেখানে গিয়ে দেখি, সবাই পাথর ছুড়ছে পুলিশের উদ্দেশে। এতে চারজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। দুজন নারী ও দুজন পুরুষকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।’

এসএইচ-১৩/২৬/২০ (স্পোর্টস ডেস্ক)