বাংলাদেশের নাহিদা আইসিসির বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে

বাংলাদেশের প্রথম নারী ক্রিকেটার হিসেবে আইসিসির মাস সেরা পুরস্কার জিতে নেন। ২০২৩ সালে নিয়েছিলেন ২০ উইকেট, যেটি ছিল বছরের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। আইসিসির বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে সুযোগ পেয়েছেন এই বাঁহাতি স্পিনার নাহিদা আক্তার।

২০২৩ সালের সেরা পুরুষ ও নারী ওয়ানডে দল আজ ঘোষণা করেছে আইসিসি। মেয়েদের দলে সর্বোচ্চ পাঁচজন ক্রিকেটারই অস্ট্রেলিয়ার, দুজন নিউজিল্যান্ডের। আর একজন করে রাখা হয়েছে বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ইংল্যান্ড থেকে।

দেশে পাকিস্তানের বিপক্ষে জয় পাওয়া ওয়ানডে সিরিজে ৭ উইকেট পেয়েছিলেন নাহিদা। সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচটি টাই হলে সুপার ওভারে বোলিং করতে এসে মাত্র ৭ রান করে ২ উইকেট করেন নাহিদা। সিরিজের তৃতীয় ম্যাচেও তিনি উইকেট ৩টি নেন। তিনি ভারতের বিপক্ষে সিরিজেও ১৫ গড়ে করেছিলেন ৬ উইকেট।

২০২৩ সালের বর্ষসেরা পুরুষ ক্রিকেটারদের নামও ঘোষণা করেছে আইসিসি। যেখানে দাপট ভারতীয় ক্রিকেটারদের। একাদশে ভারতের সর্বোচ্চ ৬ জন ক্রিকেটার আছেন।

ওপেনিংয়ের রোহিত শর্মার সঙ্গে আছেন শুবমান গিল। এ ছাড়া আছে বিরাট কোহলি, কুলদীপ যাদব, মোহাম্মদ সিরাজ ও মোহাম্মদ শামি। গত বছর ওয়ানডে বিশ্বকাপ জেতা অস্ট্রেলিয়ার দুজন জায়গা পেয়েছেন একাদশে-বিশ্বকাপ ফাইনালে শতক করা ট্রাভিস হেড ও লেগ স্পিনার অ্যাডাম জাম্পা। দক্ষিণ আফ্রিকায় আছেন দুজন-হাইনরিখ ক্লাসেন ও মার্কো ইয়ানসেন। নিউজিল্যান্ডের একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে জায়গা পেয়েছেন ড্যারিল মিচেল।

রোহিত-গিল দুজনের জায়গা পাওয়াটা অনুমিতই ছিল। ৫২ গড়ে গত বছর রোহিত ওয়ানডেতে রান করেছেন ১২৫৫। অন্যদিকে গিলের ব্যাট থেকে রান এসেছে বছরের সর্বোচ্চ ১৫৮৪। ট্রাভিস হেড সেমিফাইনালে ব্যাট হাতে অর্ধশতকের পর বল হাতে নিয়েছিলেন ২ উইকেট। ফাইনালে তো খেলেছেন অনবদ্য ১৩৭ রানের ইনিংস। কোহলিও বছরজুড়ে পারফর্ম করে গেছেন। রান করেছেন ১৩৭৭। ভেঙেছেন শচীন টেন্ডুলকারের ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ শতকরে রেকর্ড। মিচেল গত বছর রান করেছেন ৫০-এর বেশি গড়ে। ৩২ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান গত বছরে শতক করেছেন ৫টি। মোট ১২০৪ রান এসেছে তার ব্যাট থেকে।

গত বছরে ওয়ানডেতে ক্লাসেন ব্যাট করেছেন ১৪০.৬৬ স্ট্রাইক রেটে। এক পঞ্জিকাবর্ষে কমপক্ষে ৯০০ রান করা ব্যাটসম্যানদের মধ্যে এর চেয়ে বেশি স্ট্রাইক রেট কারও নেই। ২০২৩ সালে ক্লাসেন ২২ ইনিংসে করেছেন ৯২৭ রান। ১৪০ স্ট্রাইক রেটে ব্যাট করেছেন বলে যে গড়টা কম, তা নয়-৪৬.৩৫।

ইয়ানসেন অস্ট্রেলিয়া সিরিজে ক্যারিয়ারে প্রথমবার ৫ উইকেটের দেখা পেয়েছিলেন। বিশ্বকাপেও ব্যাট-বলে ভালো পারফর্ম করেছেন। ওয়ানডেতে গত বছর জাম্পা উইকেট নিয়েছেন ৩৮টি। ২০২৩ ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ ৪৯ উইকেট কুলদীপের। সিরিজের উইকেট ৪৪টি। শামি বিশ্বকাপে নিয়েছিলেন সর্বোচ্চ ২৪ উইকেট। সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তার ৫৭ রানে ৭ উইকেটের স্পেল ওয়ানডেতে ভারতের সেরা।

এসএ-০৫/২৩/২৪(স্পোর্টস ডেস্ক)