ম্যাক্সওয়েলের রেকর্ড সেঞ্চুরি, সিরিজ জিতল অস্ট্রেলিয়া

অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টেস্ট সিরিজেই কেবল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পেরেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সাদা পোশাকের সিরিজটি ১-১ এ ড্র করার পর তারা ওয়ানডে সিরিজ ৩-০ ব্যবধানে হেরে যায়। এবার টি-টোয়েন্টি সিরিজও তারা খুইয়ে বসেছে। যদিও বড় স্কোরের ম্যাচে দ্রুত উইকেট হারালেও ক্যারিবীয়রা রানতাড়ায় দুইশ পেরোয়। তবে গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের রেকর্ডগড়া সেঞ্চুরির ম্যাচটি অজিরা জিতেছে ৩৪ রানে।

অ্যাডিলেডে আজ (রোববার) সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে মুখোমুখি হয় দু’দল। আগে ব্যাট করতে নেমে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া ম্যাক্সওয়েলের বিধ্বংসী সেঞ্চুরিতে ৪ উইকেটে ২৪১ রান তোলে। বড় লক্ষ্য তাড়ায় উইন্ডিজদের হয়ে একমাত্র ফিফটি করেছেন অধিনায়ক রভম্যান পাওয়েল। এছাড়া আন্দ্রে রাসেল, নিকোলাস পুরান ও জেসন হোল্ডাররা ছোট্ট ঝড় তুললেও সর্বসাকুল্যে সফরকারীরা ২০৭ রান করতে সক্ষম হয়। ফলে এক ম্যাচ হাতে রেখে সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের সিরিজ নিশ্চিত করল মিচেল মার্শের দল।

টস হেরে শুরুতে ব্যাট করতে নামা অজিদের প্রথম ইনিংসের মূল কারিগর ছিলেন ম্যাক্সওয়েল। ভারত বিশ্বকাপে দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়া এই তারকা ব্যাটার এদিন নেমেছিলেন চার নম্বরে। এরপর রীতিমতো প্রলয়ঙ্করী ঝড় বইয়ে দিয়েছেন ক্যারিবীয় বোলারদের ওপর। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ১০২তম ম্যাচ খেলতে নামা ম্যাক্সওয়েল পঞ্চম সেঞ্চুরি করেছেন। সমান সংখ্যক তিন অঙ্কের ইনিংস আছে আর একজনের। ১৫১ ম্যাচ খেলা রোহিতের নামের পাশেও রয়েছে পাঁচটি সেঞ্চুরি। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরিতে দুজন এখন যৌথভাবে শীর্ষে আছেন।

মাত্র ৫৫ বল মোকাবিলায় ১২০ রানের অপরাজিত বিস্ফোরক ইনিংস খেলেছেন অজি অলরাউন্ডার। তার ব্যাট থেকে আসে ১২ চার ও ৮ ছক্কা। ২৫ বলে হাফসেঞ্চুরি স্পর্শ করে তিনি সেঞ্চুরিতে পৌঁছান ৫০ বলে। এছাড়া অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক মিচেল মার্শ ১২ বলে ২৯ এবং টিম ডেভিড ১৪ বলে ৩১ রানে অপরাজিত থাকেন। ফলে স্বাগতিকরা ম্যাচ জয়ের বড় পুঁজি পেয়ে যায়। ক্যারিবীয়দের হয়ে দুটি উইকেট নিয়েছেন হোল্ডার। আলজারি জোসেফ ও রোমারিও শেফার্ড একটি করে শিকার ধরেন।

বড় লক্ষ্য তাড়ায় শুরু থেকে বড় জুটি গড়তে ব্যর্থ হয়েছেন ক্যারিবীয়রা। নিয়মিত বিরতিতে তারা উইকেট পতনের মিছিলে শামিল হয়েছেন। দলীয় ১১ রানে প্রথম উইকেট হারানো দলটি পঞ্চম উইকেট হারিয়ে বসে ৬৩ রানে। এরপর পাওয়েল, রাসেল ও হোল্ডারের ব্যাটে চড়ে সফরকারীরা বিপর্যয় সামলানোর চেষ্টা করে। শুরুতে দ্রুত উইকেট হারানো–ই তাদের জন্য কাল হয়ে দাঁড়ায়। ওপেনার জনসন চার্লস ১১ বলে ২৪, পুরান ১০ বলে ১৮, রাসেল ১৬ বলে ৩৭ এবং হোল্ডার ১৬ বলে ২৮ রান করেন।

শেষ পর্যন্ত লড়াই চালিয়েছেন উইন্ডিজ দলপতি পাওয়েল। অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার আগে তিনি ৩৬ বলে ৬৩ রান করেন ৫ চার ও ৪ ছক্কায়। প্রায় অসম্ভব জয়ের স্বপ্নও দেখিয়েছেন পাওয়েল, তবে শেষ পর্যন্ত তার দল জয় থেকে ৩৪ রানের দূরত্বে থেমে যায়। অজিদের হয়ে ৩৬ রানে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন পেস অলরাউন্ডার মার্কাস স্টয়নিস।

এসএ-০৪/১০/২৪(স্পোর্টস ডেস্ক)