ফেসবুকে ভুয়া খবর ছড়াচ্ছে ৭০ দেশ

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৯ আপডেটঃ ৫:৫৯ অপরাহ্ন

ফেসবুকে ভুয়া তথ্য প্রচার করে রাজনৈতিক ফায়দা লোটার শীর্ষ দেশের তালিকা প্রকাশ করেছে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক ।সরকারী দল বা বেসরকারী দলগুলো প্রতিপক্ষকে রাজনৈতিক ভাবে বিতর্কিত করতে, প্রপাগান্ডা বা গুজব ছড়াতে ব্যবহার করছে ফেসবুকের মতো জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে।সম্প্রতি এমন কিছু দেশের উপর গবেষনা করে্ এ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়।

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা এক গবেষণায় উল্লেখ করেছেন, ৭০টি দেশ ফেসবুকে ভুয়া খবর ছড়াচ্ছে। গবেষণায় বলা হয়, সরকার ও রাজনৈতিক দলগুলোর ভুয়া তথ্য প্রচারে ফেসবুক এখন পরিচিত প্ল্যাটফর্ম হয়ে উঠেছে। রয়টার্স

‘দ্য গ্লোবাল ডিসইনফরমেশন অর্ডার ২০১৯ : গ্লোবাল ইনভেনটরি অব অরগানাইজড সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানিপুলেশন’ শীর্ষক গবেষণা নিবন্ধে বলা হয়, ৭০টির মতো দেশে সরকার ও রাজনৈতিক দলগুলো ফেসবুকের অপব্যবহার করছে। দ্বিগুণ হয়ে দুই বছর আগের তুলনায় ফেসবুক অপব্যবহারের হার । ফেসবুক রাজনৈতিক দলগুলোর জন্য বৈশ্বিক প্ল্যাটফর্ম হিসেবে ভুয়া খবর ছড়ানোর উপযুক্ত মাধ্যম । এতে জনগণের মতামতকে বদলে দেয়া যেতে পারে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাজনৈতিক দলগুলো প্রতিপক্ষের নামে ফেসবুকে ভুয়া তথ্য ও বাজে কথা ছড়ায় । বিভিন্ন দেশে সরকারের পক্ষ থেকে এ ধরনের কাজে পৃষ্ঠপোষকতা করা হয়। যে ৭০টি দেশের তালিকা এসেছে তার মধ্যে বাংলাদেশের প্রতিবেশী হিসেবে ভারত, পাকিস্তান ও মিয়ানমারের নাম এসেছে। তবে ওই তালিকায় বাংলাদেশের নাম নেই। ওই তালিকায় যুক্তরাষ্ট্র, সৌদি আরব, ইরান, চীন, তুরস্ক, রাশিয়া, থাইল্যান্ড, ব্রাজিল, স্পেনের মতো দেশ রয়েছে। গবেষকরা তিন বছর ধরে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম পর্যবেক্ষণ করেন।

অক্সফোর্ড ইন্টারনেট ইনস্টিটিউটের দুজন গবেষক রাজনৈতিক দলগুলোর ফেসবুকে আগ্রহ দেখানোর দুটি কারণ চিহ্নিত করেছেন। একটি হচ্ছে এর বৈশ্বিক পর্যায়ে পৌঁছানোর ক্ষমতা আর অন্যটি হচ্ছে ফেসবুকে ভুয়া খবর ঠেকানোর ব্যর্থতা।

এসএইচ-২৫/৩০/১৯ (প্রযুক্তি ডেস্ক)