সিরাজগঞ্জে ছেলেধরা গুজবে গণপিটুনিতে হাসপাতালে চোর

প্রকাশিতঃ জুলাই ২৩, ২০১৯ আপডেটঃ ৪:৫১ অপরাহ্ন

সিরাজগঞ্জে ছেলেধরা গুজবে গণপিটুনির শিকার হয়েছেন আলম শেখ (৩৫) নামে এক ব্যক্তি। মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে সদর উপজেলার পাইকপাড়া দারুল কোরআন কওমি মাদরাসায় এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী আলম পৌর এলাকার গয়লা বটতলা এলাকায় আব্দুর রহিমের ছেলে।

এদিকে এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই মাদরাসার অধ্যক্ষ হাফিজুর রহমানসহ চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। আটক অন্যরা হলেন পাইকপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মো. আয়নাল, মোকলেছুর রহমান ও আব্দুল আওয়াল।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকালে ওই ব্যক্তি মাদরাসার জানালা দিয়ে ঢোকার চেষ্টা করছিলেন। এ সময় শিক্ষার্থীরা তাকে দেখে ভয়ে চিৎকার করেন। তাদের চিৎকারে গ্রামবাসী ও সব ছাত্ররা ওই ব্যাক্তিকে আটক করে গণপিটুনি দেয়।

খবর পেয়ে পুলিশ আহত অবস্থায় আলমকে উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ ২৫০ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে সেখানে তার চিকিৎসা চলছে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু দাউদ জানান, ছেলে ধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে আহত আলম আসলে একজন ছিঁচকে চোর ও মাদকাসক্ত। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই মাদরাসার অধ্যক্ষ হাফিজুর রহমানসহ চারজনকে আটক করা হয়েছে।

বিএ-০৬/২৩-০৭ (উত্তরাঞ্চল ডেস্ক)