মায়ের চোখের সামনেই ট্রাকের চাকায় পিষ্ট ছোট্ট শিশু

প্রকাশিতঃ ডিসেম্বর ২৬, ২০১৯ আপডেটঃ ৬:২৭ অপরাহ্ন

বার্ষিক পরীক্ষার পর বিদ্যালয় ছুটি হওয়ায় মায়ের সঙ্গে নানার বাড়ি যাচ্ছিল শিশু আজিজুল (৬) ও তার ছোট ভাই। পথিমধ্যে মা রুপা খাতুনের চোখের সামনে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হল আজিজুল।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে পাবনা-ঢাকা মহাসড়কের সাঁথিয়া উপজেলার বনগ্রাম বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আজিজুল সাঁথিয়া উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের আফজাল হোসেনের ছেলে। ইসলামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্র ছিল আজিজুল।

প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয় স্কুলশিক্ষক আব্দুল খালেক বলেন, দুপুর ১২টার দিকে আজিজুল ও তার ছোট ভাইকে নিয়ে মা রুপা খাতুন উপজেলার মাহমুদপুর গ্রামে বাবার বাড়ি যাচ্ছিলেন। একটি ভ্যানযোগে বনগ্রাম বাজারে মহাসড়ক পার হচ্ছিলেন তারা।

এ সময় পাবনাগামী একটি ট্রাক তাদের ভ্যানকে ধাক্কা দেয়। এতে শিশু আজিজুল ভ্যান থেকে পড়ে ট্রাকের চাপায় পিষ্ট হয়। সঙ্গে সঙ্গে তার দেহ ছিন্নভিন্ন হয়ে যায়।

চোখের সামনে দুই ছেলের একজনের নির্মম মৃত্যু দেখে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন মা রুপা খাতুন। তাকে এবং আহত সন্তানকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে জ্ঞান ফেরার পর বার বার মূর্ছা যাচ্ছেন তিনি।

মাধপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আমিনুল ইসলাম বলেন, নিহত শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘাতক ট্রাকের সন্ধান পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে নির্মম এই দুর্ঘটনার জন্য বনগ্রাম এলাকার মহাসড়কের দু’পাশে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাক, অটোবাইক, ভ্যান-রিকশা ও অটোবাইককে দায়ী করেছেন স্থানীয়রা।

তাদের দাবি, যানবাহন দিয়ে মহাসড়কের দু’পাশ আটকে রাখায় পথচারীরা ঠিকমতো চলাচল করতে পারে না। এজন্য সড়কে নামলেই দুর্ঘটনার শিকার হন যাত্রীরা।

বিএ-০৫/২৬-১২ (উত্তরাঞ্চল ডেস্ক)