বেরোবিতে বঙ্গবন্ধু নামের বানান বিকৃত, দুই জনকে বরখাস্ত

প্রকাশিতঃ জুলাই ৯, ২০১৮ আপডেটঃ ৯:৪৩ অপরাহ্ন

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) নির্বাহী প্রকৌশলীর দায়িত্বে থাকা উপ-সহকারী প্রকৌশলী ও এক কম্পিউটার অপারেটরকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামের বানান বিকৃত করায় তাদের বরখাস্ত করা হয়েছে। সোমবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ, তথ্য ও প্রকাশনা দফতরের সহকারী পরিচালক তাবিউর রহমান প্রধান জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত রোববার তাদের কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়। তিনি বলেন, অফিস আদেশে বানান ভুল করায় এক কর্মকর্তা ও এক কর্মচারীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। একইসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. আবু কালাম মো. ফরিদ উল ইসলামকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, সহকারী প্রক্টর মো. আতিউর রহমান এবং মো. ছদরুল ইসলাম সরকার। কমিটিকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। ক্যাম্পাস সূত্রে জানা গেছে, গত ৪ জুলাই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল, শহীদ মুখতার ইলাহী হল এবং কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির বৈদ্যুতিক মেইনটেনেন্স কাজের জন্য প্রকৌশল দফতর থেকে দুইজন ইলেকট্রিশিয়ানকে দায়িত্ব প্রদানের একটি চিঠি ইস্যু করা হয়।

আরও খবর: তরিকুলের মেরুদণ্ডের হাড়ও ভেঙে গেছে (ভিডিও)

সেই চিঠিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাম ভুল বানানে লেখা হয় ‘বঙ্গবন্দু শেখে’। এছাড়া শহীদ মুখতার ইলাহীর নামের বানান বিকৃত করে লেখা হয় ‘মোখতার’ ইলাহী। ওই চিঠিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-প্রকৌশলী মো. শরীফ হোসাইন পাটোয়ারীর স্বাক্ষর ছিল।

এ ঘটনায় সোমবার বেলা ১১টার দিকে অভিযুক্ত কর্মকর্তার অব্যাহতি ও শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার দাবিতে প্রশাসন ভবনে তালা ঝুলিয়ে দেয় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। পরে দুপুর ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আবু কালাম মো. ফরিদ উল ইসলামের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাসে তালা খুলে দেয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

উপ-প্রকৌশলী মো. শরীফ হোসাইন পাটোয়ারী দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, চিঠিটা কম্পিউটার অপারেটর লিখতে ভুল করেছেন। ভুলটা অনাকাঙ্ক্ষিত।

এমও-১৯/০৯-০৭ (শিক্ষা ডেস্ক)