তরুনীরা শরীর বিক্রি করছেন ওষুধ কেনার জন্য!

প্রকাশিতঃ ডিসেম্বর ৬, ২০১৭ আপডেটঃ ১১:৪৯ অপরাহ্ন

গত ছয় বছর ধরে আর্থিক সংকটে ভুগছে গ্রিস৷ বছরের পর বছর অর্থনৈতিক সংকটে ডুবে থাকার ফল যে কতটা ভয়ঙ্কর, তা শুনলে শিউরে উঠতে হয়৷ পেটের জ্বালা মেটাতে এখানে দেহ বেচতে হয় মেয়েদের৷ হ্যাঁ, একটি বড় স্যান্ডউইচের জন্য দেহ বিক্রি করছেন গ্রিসের তরুণীরা!

একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, খিদে মেটাতে প্রায় ১৭ হাজার তরুণী দেহব্যবসা শুরু করেছেন৷ বলা ভালো পূর্ব ইউরোপে দেহব্যবসায় এখন এক নম্বরে গ্রিস৷

গ্রিসের জনজীবন নিয়ে তিন বছর সমীক্ষা চালানো অ্যাথেন্স-এর পেন্টিয়ন ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক লাক্সসের কথায়, ‘‘ কোনও কোনও মহিলা একটু চিজ বা একটা স্যান্ডউইচের জন্য দেহ বেচতে রাজি হয়ে যাচ্ছেন৷ কারণ তাঁরা ক্ষুধিত ৷ তাঁদের খাবার চাই৷ কেউ কেউ আবার বিল মেটানো, কর দেওয়া, জরুরি চাহিদা বা ওষুধ কেনার জন্য এই পথে পা বাড়াচ্ছেন৷’’

আরও খবর : নারীরা প্রাকৃতিকভাবেই পুরুষের চেয়ে সক্ষম

গ্রিসে যখন অর্থনৈতিক সংকট শুরু হয়, তখন একজন বারাঙ্গনার দর ছিল ৫৩ ডলার৷ এখন তা ঠেকেছে ২.১২ ডলারে (১৬৫ টাকা) ৷ ৩০ মিনিটের বিনিময়ে এই টাকা হাতে পান দেহব্যবসায়ীরা৷

লাক্সসের সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, আর্থিক সংকট তীব্র হওয়ার পর ৪০০-র বেশি মহিলা যৌনবৃত্তি শুরু করেছেন৷ ন্যূনতম চাকার বিনিময়ে বিছানায় যাচ্ছেন তাঁরা৷ এক টুকরো খাবারের জন্য গ্রিসের রাতে পথে বেরচ্ছেন প্রায় সাড়ে ১৮ হাজার তরুণী৷ যাঁদের অধিকাংশেরই বয়স ১৭ থেকে ২০-র মধ্যে৷

এসএইচ-১৯/০৬/১২ (অনলাইন ডেস্ক)