কি করে বুঝবেন আপনার ডায়াবেটিস?

প্রকাশিতঃ মার্চ ১১, ২০১৮ আপডেটঃ ৫:১৮ অপরাহ্ন

ডায়াবেটিস একটি রোগ যা আপনার শরীরের ইনসুলিন উৎপাদন প্রক্রিয়ার ক্ষমতাকে প্রভাবিত করে। ফলে রক্তে শর্করার পরিমাণ বেড়ে যায়। প্রথম উপসর্গগুলি খুব হালকা হতে পারে।ফলে কিছু লোক এগুলোকে পাত্তা দেয় না। কিন্তু এতে করে আপনার জীবনের ঝুঁকি বেড়ে যায়। তাই রোগের প্রথম দিকে শনাক্ত করা খুব গুরুত্বপূর্ণ । ডায়াবেটিসের কিছু লক্ষণ আছে যা হলে আপনার দেরী না করে ডাক্তারের কাছে যাওয়া উচিত। আমাদের আজকের আয়োজনে আমরা ডায়াবেটিসের প্রাথমিক লক্ষণগুলো সম্পর্কে আলোচনা করব।

ঘন ঘন প্রস্রাব হওয়া

একে পলিইউরিয়া বলা হয়। এটি ডায়াবেটিসের সবচেয়ে প্রধান লক্ষণগুলোর ১টি। ডায়াবেটিস হলে আপনার কিডনি অতিরিক্ত চিনি গ্রহণ করতে পারে না। ফলে আপনার বার বার প্রস্রাব এসবে। একজন মানুষ গড়ে দিনে ৬-৭ পার প্রস্রাব করে।

পানির প্রচুর পিপাসা পাওয়া

একে পলিডিপ্সিয়া বলা হয়। বারবার প্রস্রাব হলে আপনার শরীরে পানিশূন্যতা দেখা দিবে। ফলে আপনার ঘন ঘন পানির পিপাসা পাবে।

ক্ষুধা বৃদ্ধি পাওয়া

একে পলিফেজিয়া বলা হয়। ঘন ঘন প্রস্রাব হওয়া ও পানির প্রচুর পিপাসা পাওয়া এই ২টির পর বার বার খুদা পাওয়া ডায়াবেটিসের অন্যতম বড় লক্ষণ। যদি আপনার শরীর যথেষ্ট ইনসুলিন উৎপাদন করতে না পারে, তখন এটি আপনার খাদ্যকে গ্লুকোজে রুপান্তর করতে পারে না। ফলে আপনার বার বার খিদা পায়। আর যত খাবেন আপনার রক্তে শর্করার পরিমাণ আরো বাড়তে থাকবে।

অবসাদ

এটি ডায়াবেটিসের আরেকটি লক্ষণ। ডায়াবেটিস হলে আপনার সবসময় ক্লান্ত লাগবে ও ঘুম আসবে। অন্য কারনেও অবসাদ আসতে পারে। কিন্তু উপরের লক্ষণগুলোর সাথে যদি এই লক্ষণও দেখা যায় তবে দেরি না করে ডাক্তারের কাছে যাওয়া উচিত।

ঝাপসা দৃষ্টি

যদি চোখের অন্য কোন সমস্যা না থাকে তবে ঝাপসা দৃষ্টি ডায়াবেটিসের লক্ষণ হতে পারে। এর ফলে, যা আপনার চোখের লেন্স এবং এর আকৃতি পরিবর্তন হতে পারে। এতে আপনার কোন বিষয়ে দৃষ্টি নিবন্ধ করা কঠিন হয়ে পরে। চিকিৎসা না করলে আপনি অন্ধ পর্যন্ত হতে পারেন।

অস্বাভাবিক ওজন হ্রাস

ডায়েট অথবা ব্যায়াম করা ছাড়া যদি ওজন কমে তবে ধরে নিতে হবে এটি ডায়াবেটিসের লক্ষণ। যখন আপনার শরীর খাদ্য থেকে প্রয়োজনীয় শক্তি সংগ্রহ করতে পারে না তখন এটি আপনার শরীরের ফ্যাট পুড়িয়ে শক্তি সংগ্রহ করে। ফলে আপনার ওজন কমতে থাকে।

চুলকানো ও চামড়া ফাটা

যখন অতিরিক্ত চিনি আপনার প্রস্রাবের মাধ্যমে বের হয়, তখন এটি আপনার ত্বক সহ আপনার অন্যান্য টিস্যু থেকে তরল টানতে থাকে। আপনার চামড়া শুকাতে থাকে, চুলকাতে থাকে এবং এর ফলে পরবর্তীতে চামড়া ফাটা শুরু হয়। শীতকালেও কিন্তু আমাদের চামড়া ফাটে। তবে অন্যান্য লক্ষণের সাথে এটি দেখা দিলে দেরি না করে আজই ডাক্তারের কাছে যান।

ঘা শুঁকাতে দেরী হওয়া

শরীরের বিভিন্ন কাটাকুটি যদি খুব ধীরে শুকায় তবে তা ডায়াবেটিসের লক্ষণ। রক্তে উচ্চ শর্করার মাত্রা ফুসকুড়িতে প্রদাহ বৃদ্ধি করে এবং রক্ত সঞ্চালনও কমতে থাকে। ফলে রক্তের জন্য ক্ষতিকারক স্থানে পৌঁছানো এবং চামড়ার ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা মেরামত করা কঠিন করা কঠিন হয়ে পড়ে।

ত্বকে কালো কালো দাগ পড়া

ডায়াবেটিস হলে আপনার ত্বকের বিভিন্ন স্থান, যেমন- ঘাড়, বগল, কনুই, হাঁটু, আঙ্গুল এসব স্থানে কালো কালো দাগ হতে থাকবে। এরকম হতে থাকলে দেরী না করে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

হাত-পা অসাড় হয়ে যাওয়া/ ঝি ঝি ধরা

এটি ডায়াবেটিসের অন্যতম আরেকটি লক্ষণ। রক্তে শর্করার পরিমাণ বৃদ্ধি ও রক্তের প্রবাহ কমে গেলে এরকম হয়। পরবর্তীতে এটি আপনার নার্ভকে নষ্ট করে দিতে পারে।

তাই এসব লক্ষণ দেখা দিলে দেরী না করে আজই ডাক্তারের কাছে যান। মনে রাখবেন, ‘স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল’। নতুন কিছু জানতে পারলে লাইক, কমেন্ট, শেয়ারের মাধ্যমে আমাদের সাথে থাকুন। ধন্যবাদ আমাদের সাথে থাকার জন্য।

আরএম-২১/১১-০৩ (স্বাস্থ্য ডেস্ক)