স্বামীর চিঠি খুলেই ট্রাম্প পুত্রবধূ হাসপাতালে

প্রকাশিতঃ ফেব্রুয়ারী ১৩, ২০১৮ আপডেটঃ ৯:১৯ অপরাহ্ন

স্বামী ডোনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়রের কাছে আসা চিঠিগুলো খুলে দেখছিলেন স্ত্রী ভেনেসা। এর মধ্যে একটি খাম খুলে অজ্ঞান হয়ে যান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পুত্রবধূ। দ্রুত তাঁকে নিউইয়র্কের একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। ওই খামে ‘সন্দেহজনক পাউডার’ ছিল বলে ধারণা করা হয়। যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের বাড়িতে গতকাল সোমবার এ ঘটনা ঘট।

মার্কিন গণমাধ্যমগুলো বলছে, পাউডার ছিল সাদা রঙের। পাঁচ সন্তানের মা ভেনেসাসহ কারও কোনো ক্ষতি হয়নি। পুলিশের মুখপাত্র জানান, নমুনা পরীক্ষা করে বিপজ্জনক কিছু পাওয়া যায়নি। ট্রাম্পপুত্র ঘটনাকে ‘খুবই জঘন্য’ বলে টুইট করেছেন। ভাইয়ের বউকে নিয়ে চিন্তিত প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের মেয়ে ও উপদেষ্টা ইভানকা ট্রাম্প। টুইটে বলেছেন, ‘কাউকে এভাবে ভয় দেখানো উচিত নয়। এর কোনো ক্ষমা হতে পারে না।’

আরও খবর: সঙ্কটে মালদ্বীপ, মাশুল গুণতে দিশেহারা ভারত

চিঠিটি ট্রাম্পের ছেলে ট্রাম্প জুনিয়রের ঠিকানায় এসেছিল। তাতে বোস্টনের ডাক-মোহর মারা ছিল। তদন্ত-সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র বলছে, ওগুলো ছিল নেহাতই ভুট্টার গুঁড়া।

যুক্তরাষ্ট্রের দৈনিক নিউইয়র্ক পোস্টকে একটি সূত্র জানায়, চিঠিটি ভেনেসা গ্রহণের আগে তাঁর মা হেইডনই গ্রহণ করেছিলেন। পরে তিনি তা মেয়েকে দেন।

ওই খামে রহস্যময় পাউডার ছাড়াও একটি হুমকিমূলক চিঠি ছিল বলে একটি সূত্র জানায়। তাতে ট্রাম্প জুনিয়রকে একজন ভয়ানক ব্যক্তি হিসেবে বর্ণনা করা হয়। এ রহস্যের কিনারা পেতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সব দপ্তর উঠে-পড়ে লেগেছে।

তবে তদন্তকারী ব্যক্তিরা ইতিমধ্যে ওই পাউডারকে নেহাত ভুট্টার গুঁড়ো হিসেবে চিহ্নিত করেছে বলে সূত্রটি জানায়।

হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি সারা স্যান্ডার্স এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, বিষয়টি নিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প পুত্রবধূর সঙ্গে কথা বলেছেন। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে।

বিএ-১৪/১৩-০২ (আন্তর্জাতিক ডেস্ক)