ছেলে মানুষ করতে টোটো চালাচ্ছেন মা

প্রকাশিতঃ জুন ২১, ২০১৮ আপডেটঃ ৩:২৮ অপরাহ্ন

কখনও মেলে প্রশংসা, আবার কখনও ব্যঙ্গাত্মক হাসি। কয়েক মাস ধরে পথের মধ্যে এমন অভিজ্ঞতাকে সঙ্গী করেই বহরমপুর শহরের রাস্তায় টোটো চালাচ্ছেন সোনালি জানা।

একমাত্র ছেলেকে মানুষ করতে ও সংসারের হাল ধরতে পথে নামতে বাধ্য হয়েছেন তিনি। পুরুষ টোটো চালকদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে মহিলা হয়েও চালকের আসনে বসে সওয়ারিদের গন্তব্যে পৌঁছে দিচ্ছেন। সওয়ারিদের অনেকেই তাঁর এই লড়াইয়ের প্রশংসা করেছেন।

ভারতের বহরমপুর শহরের খাগড়া এলাকার কাঁসারিপাড়ার বাসিন্দা সোনালি। বছর ছয়েক আগে ধুমধাম করে বিয়ে হয় তাঁর। কিন্তু কিছুদিন পর স্বামীর সঙ্গে ঝামেলা বাধে। সোনালি জানান, স্বামীর চরিত্র ভাল নয়। প্রতিদিন নেশা করত। অন্য এক মহিলার সঙ্গে সম্পর্কও ছিল তাঁর। কাজ করত না। ফলে সংসার চালানো বেশ কষ্টের হয়ে উঠেছিল সোনালির কাছে।

আরও খবর : বিশ্বকাপে রুশ নারীদের নিয়ে যত কথা

কাজ করার কথা বললে স্বামী তাঁকে বাপের বাড়ি থেকে টোটো কেনার টাকা আনতে বলে। বাধ্য হয়ে ব্যাঙ্ক থেকে লোন নিয়ে স্বামীকে টোটো কিনে দেন সোনালি। টোটো চালিয়ে ভালই রোজগার হচ্ছিল।

সোনালির কথায়, ‘‌লোনের টাকা পরিশোধ না করে, প্রেমিকাকে টাকা দিচ্ছিল স্বামী। তাই একদিন টোটোর চাবি জোর করে কেড়ে নিই। নিজেই চালাতে শুরু করি।’‌ ছেলেকে মানুষ করে তোলা ও টোটোর লোন পরিশোধ করার লক্ষ্য নিয়ে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন সোনালি।‌‌

এসএইচ-১৬/২১/০৬ (অনলাইন ডেস্ক, তথ্যসূত্র : আজকাল)