শিক্ষার্থীদের স্থায়ী বসবাসের সুযোগ হচ্ছে

প্রকাশিতঃ জুলাই ১১, ২০১৮ আপডেটঃ ১১:৫৭ পূর্বাহ্ন

অভিবাসন প্রত্যাশীদের কাছে পছন্দের দেশ অস্ট্রেলিয়া। আন্তর্জাতিক বিভিন্ন জরিপে দেখা গেছে, বসবাস ও কাজের জন্য অনেকের কাছে অস্ট্রেলিয়ার শহরগুলো সর্বাধিক প্রিয়। এর মূল কারণ শান্তি-শৃঙ্খলা, সামাজিক নিরাপত্তা, পরিবেশ, চাকরি, খরচ, যোগাযোগ ব্যবস্থা, শিক্ষা ও চিকিৎসা মানের দিক দিয়ে দেশটি সেরা। তাই উচ্চশিক্ষার জন্য প্রতি বছর হাজার হাজার বিদেশি শিক্ষার্থী এখানে পাড়ি জমাচ্ছেন।

বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা এসব শিক্ষার্থীর বড় অংশ দেশটিতে স্থায়ী বসবাসের সুযোগ প্রত্যাশী। কিন্তু অভিবাসন ও ভিসা সংক্রান্ত জটিলতায় তা অনেক সময় সম্ভব হয় না।

দক্ষ ও পেশাদার অভিবাসীদের স্থায়ী বসবাসের সুযোগ করে দিতে অস্ট্রেলিয়ার অভিবাসন বিভাগ সম্প্রতি কাজ শুরু করেছে।

তাই জানা দরকার, দক্ষ পেশা তালিকার সংগে সম্পৃক্ত বিষয়ে পড়াশোনা করতে আসা শিক্ষার্থীরাই এখানে স্থায়ী ভিসা পাওয়ার ক্ষেত্রে এগিয়ে থাকেন।

আরও খবর : সৌদি আরব যেতে চাচ্ছেন ফেরত আসা নারীরা

প্রকৌশল : অস্ট্রেলিয়ায় দক্ষ পেশার তালিকায় প্রকৌশল সংক্রান্ত বেশকিছু পেশার নাম রয়েছে। বলা চলে, এই পেশায় দক্ষ লোকের ঘাটতি রয়েছে অস্ট্রেলিয়ায়। তাই প্রকৌশল বিষয়ে স্নাতক বা স্নাতকোত্তোর ডিগ্রিধারীদের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে অস্ট্রেলিয়ায়।

আইসিটি : অস্ট্রেলিয়ার অভিবাসন বিভাগ প্রযুক্তি শিল্প উন্নয়নে প্রতিভাবান উদ্ভাবকদের জন্য নতুন গ্লোবাল ট্যালেন্ট ভিসা স্কিম চালু করেছে। এছাড়া দেশটিতে টেকভিত্তিক চাকরির অনেক সুযোগ রয়েছে।

রেস্টুরেন্ট-হোটেল ব্যবস্থাপনা ও শেফ : অস্ট্রেলিয়ায় প্রচুর পর্যটক আসেন প্রতিবছর। ফলে এখানে গড়ে উঠেছে অসংখ্য ছোট-বড় রেস্টুরেন্ট ও হোটেল। এজন্য দক্ষ রেস্টুরেন্ট ও হোটেলকর্মীর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। শেফ-এর চাহিদা তো সর্বাধিক। তাই এ বিষয়ে পড়াশোনা ও অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারলে অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ী বসবাসের ভিসা পাওয়ার পথ অবারিত হচ্ছে।

মেডিকেল : অস্ট্রেলিয়ার সরকার জনস্বাস্থ্য বিষয়ে খুব সচেতন। এখানকার সরকারি-বেসরকারি প্রতিটি হাসপাতালই রোগীদের সর্বোচ্চ সেবা দিতে চেষ্টা করে। এ কারণেই এখানে স্বাস্থ্যসেবা এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে পেশাদারদের বিপুল চাহিদা রয়েছে।

আইন : অস্ট্রেলিয়ার আইন পেশা বিশ্বের অনেক প্রতিভাবান শিক্ষার্থীকে আকর্ষণ করে। তাই সলিসিটর, ব্যারিস্টার ও অন্য আইন পেশাদারদের অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ী ভিসা পাওয়ার উচ্চ সম্ভাবনা রয়েছে।

নার্সিং : অস্ট্রেলিয়ার স্বাস্থ্যসেবা ও অবকাঠামো বিশ্বের অন্যতম। স্থানীয় কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলো স্বাস্থ্যসেবা শিল্পের জন্য নার্সিং কর্মী গড়ে তুলতে সদা সচেষ্ট। এজন্য রয়েছে সুবিন্যস্ত কোর্স কাঠামো ও প্রশিক্ষক।

এসব কোর্স ছাড়াও সমাজবিজ্ঞান ও বাণিজ্য বিষয়ের পেশাদারদেরও চাহিদা রয়েছে অস্ট্রেলিয়ায়। তবে মনে রাখতে হবে, অস্ট্রেলিয়ার দক্ষ পেশার চাহিদা তালিকা সব সময় পরিবর্তন হয়। তাই পড়াশোনার জন্য কোন্ বিষয়টি বেছে নেবেন, তার আগে জেনে নিন এই মুহূর্তের চাহিদা তালিকাটি কেমন?

এসএইচ-০৯/১১/০৭ (প্রবাস ডেস্ক, তথ্যসূত্র : ভয়েস বাংলা)