শিশু কন্যাসন্তানকে খুন করে ওয়াশিং মেশিনে ঢোকাল মা!

প্রকাশিতঃ ডিসেম্বর ৬, ২০১৭ আপডেটঃ ৯:৩৯ পূর্বাহ্ন

বেটি বচাও, বেটি পড়াও’- দেশের কন্যাসন্তানদের সুরক্ষিত রাখতে এমন প্রকল্প চালু করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তবুও এদেশে এখনও বাড়িতে ছেলে না হওয়ায় মহিলাদের কপালে জোটে লাঞ্ছনা। এমনকী ফেলে দেওয়া হয় সদ্য ভূমিষ্ঠ হওয়া কন্যাসন্তানকেও।

কিন্তু ছেলে না হওয়ায় কোনও মহিলা নিজেই তার মেয়েকে মেরে ফেলেছে, এমন ঘটনার কথা বড় শোনা যায় না। সম্প্রতি গাজিয়াবাদে ঘটেছে সেরকমই একটি ঘটনা। যেখানে ছেলে হয়নি বলে নিজের তিনমাসের কন্যাসন্তানকে মেরে ওয়াশিং মেশিনে ঢুকিয়ে রাখল মা। ঘটনাটির কথা প্রকাশ্যে আসার পরই ছড়িয়েছে চাঞ্চল্য।

জানা গিয়েছে, সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদের পাটলা শহরের বাসিন্দা আরতি রবিবার অভিযোগ করে যে, তার মেয়েকে অপহরণ করা হয়েছে। কিন্তু সন্দেহ হওয়ায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পরই বেরিয়ে আসে আসল সত্যিটা। জানা যায়, নিজেই মেয়েকে হত্যা করেছে সে।

আরও খবর : ভায়াগ্রা পানের মূল্য ৫ হাজার রুপি

কিন্তু কেন এই ঘৃণ্য অপরাধ করেছে সে? উত্তরে সে পুলিশ আধিকারিকদের বলে, ছেলের বদলে মেয়ে হওয়ায় কিছুতেই তা মেনে নিতে পারেনি । তাই ওইদিন তিন মাসের মেয়েকে বালিশ চাপা দিয়ে মেরে ফেলে বছর বাইশের ওই মহিলা। যদিও পরিবারের লোকজনের দাবি, তারা কখনই ওই মহিলাকে পুত্রসন্তানের জন্য জোর করেননি। ইতিমধ্যে ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

এর আগে এরকমই একটি ঘটনা সংবাদের শিরোনামে উঠে এসেছিল। যেখানে ওয়েস্টলি ম্যাথেউ নামে আমেরিকা নিবাসী ভারতীয় বংশোদ্ভূত এক ব্যক্তি চোখের সামনে নিজের সৎ মেয়েকে মরে যেতে দেখেও কিছু না করে চুপ করেছিল এবং পরে নিজে হাতেই মেয়ের মৃতদেহ পুঁতে দিয়েছিল।

জানা গিয়েছিল, মেয়ে দুধ খেতে রাজি না হওয়ায়, তাকে জোর করে সেটা খাওয়ায় ওয়েস্টলি। এরপরই গলায় দুধ আটকে মারা যায় একরত্তি শিশুটি। ১৫দিন পর একটি কুকুর ওই শিশুটির মৃতদেহ খুঁজে পায়। এরপরই তদন্তে নেমে পুলিশ এই মর্মান্তিক ঘটনার কথা জানতে পারে এবং সঙ্গে সঙ্গে ওই ব্যক্তিকে আটকও করে।

এসএইচ-০৩/০৫/১২ (অনলাইন ডেস্ক, তথ্যসূত্র : সংবাদ প্রতিদিন)