যৌনতা নিয়ে এই সাত ভুল ধারণা কি আপনার মনেও আছে?

প্রকাশিতঃ মার্চ ১৩, ২০১৮ আপডেটঃ ৫:৫৩ অপরাহ্ন

যৌনতা। বড়ই স্পর্শকাতর শব্দ। বিশেষ করে ভারতীয় সমাজে। ছোট থেকে বড় হওয়া এখানে শাসনের অধীন। এই শাসনের গণ্ডিতে জীবনের গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষাটিই অধরা থেকে যায়। আর শিক্ষার আলো যেখানে পড়ে না, সেখানেই জন্ম হয় কুসংস্কার ও ভুল ধারণার। আজকের ‘শিক্ষিত’ সমাজও এমন অনেক ভুল ধারণা পোষণ করে। যেমন-

১) ছোটবেলায় প্রত্যেকের মনে একটি প্রশ্ন তো অবশ্যই জেগেছে। শিশুর জন্ম কেমন করে হয়? উত্তরে নানা মনগড়া যুক্তি দেন অভিভাবকরা। কেউ বলেন ঈশ্বরের উপহার, কেউ বলেন কুড়িয়ে পাওয়া গিয়েছে। সরল মন এ কথাই বহুদিন ধরে বিশ্বাস করে চলে। আর যখন আসল সত্য জানতে পারে, বিশ্বাস ভেঙে যায়।

২) যৌনতা মানে দু’টি মানুষ উলঙ্গ অবস্থায় পাশাপাশি শুয়ে থাকা কিংবা একে অন্যকে জড়িয়ে ধরা। বড়জোর চুম্বন করা। এমন ধারণা অনেকেই পোষণ করেন। এর একটা বড় কারণ সিনেমা ও টেলিভিশন।

৩) কন্ডোমের বিষয়ে অনেকেই জানেন। কিন্তু এর ব্যবহার সম্পর্কে কতজনের সম্যক ধারণা রয়েছে? অনেকে অতি সতর্ক হয়ে একইসঙ্গে দু’টি কন্ডোম ব্যবহার করেন। কিন্তু এতে দু’টির মধ্যে ঘর্ষণের সৃষ্টি হয়। ফলে কন্ডোম ছিঁড়েও যেতে পারে।

৪) অনেকেরই ধারণা কেবলমাত্র পুরুষরা হস্তমৈথুন করতে পারেন। কিন্তু এ কথা সত্য নয়। নারীরাও মৈথুন করতে সক্ষম। বর্তমানে এর জন্য অনেক কৃত্রিম যৌনসামগ্রীও তৈরি হয়েছে।

৫) অনেকে মনে করেন যৌনাঙ্গ সঠিক সময়ে বের করে নিতে পারলেই সঙ্গীর অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না। কিন্তু আদতে তা কিন্তু সত্যি নয়। তাই নিরোধ ব্যবহার করাই সবচেয়ে ভাল উপায়। আর অসুরক্ষিত মিলনে যৌনরোগ ছড়ানোর সম্ভাবনা তো থেকেই যায়।

৬) প্রথমবার ইরেকশন হলে অনেকেই ভয় পেয়ে যান। ভাবেন তা অস্বাভাবিক কিছু। এ কারণেই ছোটবেলা থেকেই যৌনশিক্ষা প্রয়োজন, যাতে নিজের শরীরের পরিবর্তন সম্পর্কে মানুষের মনে আগে থেকেই ধারণা থাকে।

৭) প্রথমবার যৌনমিলনের সময় নারী যৌনাঙ্গ থেকে রক্তক্ষরণ হয়। এ দিয়ে অনেক সময় নারীর সতীত্বের বিচারও হয়। কিন্তু এমন ধারণা সম্পূর্ণ ভুল। অন্য অনেক কারণেই সতীত্বের পর্দাটি ছিঁড়ে যেতে পারে।

আরএম-২৭/১৩-০৩ (লাইফস্টাইল ডেস্ক, তথ্যসূত্র: সংবাদপ্রতিদিন)