নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন, কোনো হাংকি-পাংকি চলবে না: ফখরুল

প্রকাশিতঃ ডিসেম্বর ৬, ২০১৭ আপডেটঃ ১০:৪১ অপরাহ্ন

নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে। সরকার জেনে গেছে যে তাদের পায়ের নিচে মাটি নেই। জনগণের সমর্থন নেই। নিরপেক্ষভাবে ভোট হলে সরকারের কোনো অস্তিত্ব থাকবে না। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন, কোনো হাংকি-পাংকি চলবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বুধবার বিকেলে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন। ৬ ডিসেম্বর গণতন্ত্র দিবস উপলক্ষে ’৯০র ডাকসু ও সর্বদলীয় ছাত্র-ঐক্য আলোচনা সভার আয়োজন করে।

তিনি বলেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বিএনপির সৈনিকেরা এখন কারাগারে কারারুদ্ধ। এখন এমন কোনো জেলা-উপজেলা নেই, যেখানে বিএনপির নেতা-কর্মীদের নামে মামলা নেই। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলা দিয়ে আদালতে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে, তাঁকে হেনস্তা করা হচ্ছে ও ভয় দেখানো হচ্ছে।

আরও খবর: পরিষ্কার ভাবে বলে দিতে চাই, আগামী নির্বাচন হবে সংবিধান অনুযায়ী: হানিফ

তিনি বলেন, কাকে ভয় দেখাচ্ছেন? খালেদা জিয়াকে? তিনি নয় বছর কোনো আপস করেননি, আপস করলে তিনি আজ প্রধানমন্ত্রী থাকতেন। তিনি আপনাদের (সরকার) সঙ্গে গত আট বছর নীতির প্রশ্নে, গণতন্ত্রের প্রশ্নে আপস করেননি।

সরকার যতই অত্যাচার করবে, যতই নির্যাতন করবে, স্বাধীনতাকামী মানুষ ততই বিএনপির হাত শক্তিশালী করবে। সরকার এত ভয় পায় কেন? নির্বাচন দিতে চায় না। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে।

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান, নরসিংদী জেলা বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির প্রমুখ।

এমও-১৮/০৬-১২ (ন্যাশনাল ডেস্ক,তথ্যসূত্র-বিডি প্রতিদিন)